,



সংবাদ শিরোনাম:
«» ১২ হাজার পিচ ইয়াবা ও নগদ ২৯লক্ষ, ৫৭হাজার ৩শ টাকা সহ ইয়াবা ব্যবসায়ী লায়লা বেগম আটক। «» বিএনপি নতুন জোটে, পুরনোতে ভাঙন – ৭১নিউজ «» যশোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত ১। «» সৌদির উদ্দেশে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী – ৭১নিউজ। «» সাতক্ষীরা সদরে ভোমরা ইউনিয়নে মহিলা দাখিল মাদ্রাসায় ২কোটি ৭৫লক্ষ টাকা ব্যয়ে একাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন : এ.মপি রবি। «» ঢাকেশ্বরীর দেড় বিঘা জমির সমাধান করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী – ৭১নিউজ। «» মরনব্যধি ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত মেধাবী শিক্ষার্থী রাকিব বাঁচতে চায়! «» কুমারখালীতে অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার «» কুষ্টিয়ায় সদর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার হত্যায় জড়িত ৪ খুনিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ «» বাংলাদেশ দলিত পরিষদ, সাতক্ষীরা জেলা শাখার পক্ষ থেকো শারদীয় দূর্গা পুজা উপলক্ষে গরীব অসহায়দের মাঝে সুজি ও চিনি বিতরণ।

মাদক ব্যবসার সঙ্গ না দেয়ায় বসত বাড়িতে আগুন দেয়ার অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁয় মাদক ব্যবসার সঙ্গ না দেয়ার কারনে বসত বাড়িতে আগুন দেয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের উপর। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সদর উপজেলায় কিত্তিপুর ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের হেলাল হোসেনের বাড়িতে পূর্ব শুত্রুতার জেরধরে আগুন দিয়ে ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় হেলাল হোসেন বাদী হয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে, কিত্তিপুর ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের হেলাল হোসেন ও একই গ্রামের খোশবর আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেন রানার দির্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা করে আসছিল কিন্তু বছর দেড়েক হল হেলাল হোসেন মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে স্বাভাবিক জিবন যাপন শুরু করে। এমতাবস্থায় আনোয়ার হোসেন সেটা মেনে নিতে না পারায় হেলালকে বিভিন্ন ভাবে হেনেস্তা করতে থাকে। তার ধারণা সে এখন মাদক ব্যবসা ছেড়ে পুলিশের সহচর হিসাবে কাজ করছে। এরই জেরধরে একাধিকবার হেলালকে মারধর ও বিভিন্ন হয়রানী করে আসছিল আনোয়ার হোসেন।
গত ৮ অক্টোবর রাত সাড়ে ১১টার দিকে একই গ্রামের ফজুর ছেলে সুমন হেলালকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে সুদুরে আনোয়ার হোসেন, সুমনসহ আরো ৭/৮জন তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করে। এসময় হেলালের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায়। এরই ধারাবহিকতায় গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ৮/১০ সজ্জিত হয়ে হেলালের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। এতেকরে তার প্রায় ২লক্ষটাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে পুলিশ ও পারিবারিক সুত্রে জানাগেছে।
এ ঘটনায় হেলাল হোসেন বাদী হয়ে মঙ্গলবার আনোয়ার হোসেন ও সুমন হোসেনসহ আরো অজ্ঞাত ৭/৮ জনকে আসামী করে নওগাঁ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

হেলালের স্ত্রী রোজিনা বেগম বলেন, মাদক ব্যবসা চেড়ে দেয়ায় আমার স্বামীকে আনোয়ার হোসেন বিভিন্ন সময় মারধর করে, ভয়ভীতি দেখায় ও ঘরে আগুন লাগায়ি দেয়ার হুমকি প্রদান করে আসছিল। ঘটনার দিন আমার বাচ্চা অসুস্থ হওয়ার কারনে আমি রাতজেগে মাথায় পানি দিচ্ছিলাম। সে সময় অনুমান রাত ২টার দিকে ঘরের কোনায় আগুন দেখে চিৎকার করতে করতে বাহিরে এসে দেখি আনোয়ার হোসেন দৌড়ে পালিয়ে যাচ্ছে।
হেলালের চাচা আলতাফ হোসেন জানান, চিৎকার দেখে বাহিরে এসে দেখি বাড়িতে আগুন লেগেছে। সবাই মিলে আগুন নিভানো হয়েছে।
পড়শি সাজ্জাদ হোসেন জানান, আমি রাতে ঘুমাচ্ছিলাম কিন্তু হঠাৎ চিৎকার চেচামেচি শুনে বাহিরে এসে দেখি হেলালের বাড়িতে আগুন লেগেছে। আগুন কিভাবে লেগেছে আমরা তা বলতে পারবনা।

মামলার বাদী হেলাল হোসেন বলেন, আনোয়ারের সাথে মাদক ব্যবসার সঙ্গ না দেয়াতে সে আমাকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করতে থাকে। শেষ পর্যন্ত সে আমার বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। আমার প্রায় দুই থেকে আড়াই লাক্ষ টাকার সম্পদ আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই।
এবিষয়ে একাধিকবার আনোয়ারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয় কিন্তু বর্তমানে সে আত্মগোপনে থাকার কারনে কোন উপায়ে তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

নওগাঁ সদর মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই বলেন, পাইকপাড়া গ্রামে বাড়িতে আগুনের ঘটনায় থানায় একাটি মামলা দায়ের হয়েছে। ইতোমধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Developed By H.m Farhad H.m Farhad
Skip to toolbar